Image default
বাংলাদেশবিশেষ সংবাদসিলেট

শমশের নগর হাসপাতাল স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে

কবি সৈয়দ মাসুম

সৈয়দ সোহেল,লন্ডন:-

A Hospital for All🌹

⭐️Want to see the happiness for unfortunate people⭐️

সৈয়দ মাসুম শমশের নগর হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটি ইউকে এর  প্রথম যুগ্ম আহ্বায়ক মনোনিত হওয়ায় অভিনন্দন।

সৈয়দ মাসুম যার লেখনি এবং সমাজের বিত্তবান দানশীল গুণীজনকে সংযুক্তির মাধ্যমে অনেক এগিয়ে নিয়ে গেছেন।

সৈয়দ মাসুম একজন একজন গুণী লেথক ও সাংবাদিক। ইতিমধ্যে তিনি কমলগঞ্জের শতজন নামক বৃটেনে অবস্থিত গুনিজনের বায়োগ্রাফী মূলক গ্রন্থ লিখে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন। তিনি শমশেরনগর হাসপাতাল এর সূচনা লগ্ন থেকেই অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশ বিদেশের গুণীজনকে সংযুক্ত করে হাসপাতাল বাস্তবায়নের কাজকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। তার আমনত্রনেই আমি নিজেকে শমশেরনগর হাসপাতাল বাস্তবায়নের কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত করি এ জন্য তার কাছে কৃতজ্ঞ। 

কবি সৈয়দ মাসুমের জন্ম ১৯৭৩সালে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ পৌরসভাধীন ঐতিহ্যবাহী খুশালপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। 

শেকড় সন্ধানীই নন ,শেকড়ের সাথে আষ্টেপৃষ্ঠে থাকা স্বদেশ প্রেমী লেখক সৈয়দ মাসুম লেখালেখির সাথে জড়িত ১৯৮৫সাল থেকে। 

১৯৮৮ সালে কিশোর বয়সে তিনি সহপাঠী ও সমমনাদের নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন কমলগঞ্জ সাহিত্য পরিষদ। নব্বইর দশকে জাতীয় কবিতা পরিষদ কমলগঞ্জ শাখা ও উদীচী কমলগঞ্জের সাথেও তিনি জড়িত ছিলেন। 

১৯৯১সালে কবি সৈয়দ মাসুমের প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়। এ পর্যন্ত তাঁর প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা প্রায় অর্ধ ডজন। 

সাপ্তাহিক শ্রীমঙ্গলের চিঠি ও দৈনিক খোলা চিঠি পত্রিকার মাধ্যমে তাঁর সাংবাদিকতা জীবন শুরু হয়। 

জাতীয় দৈনিক রূপালি ও দৈনিক আল আমিন পত্রিকাতে একসময় নিয়মিত লেখতেন। সম্পাদনা করেছেন স্পন্দন ,অনির্বাণ,স্বচিন্তা ও ইত্তেলা নামক বেশ কয়েকটি সংকলন। 

১৯৯৭ সালে কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ বই প্রকাশিত হয়েছে এমন একশত জন সিলেটি কবি ও সাহিত্যিকের জীবন ও কর্ম নিয়ে একটি বই প্রকাশ করে যেখানে সৈয়দ মাসুমের নামও অন্তর্ভুক্ত ছিলো। 

১৯৯২ সালে তিনি কমলগঞ্জে গড়ে তুলেন সমাজ সমৃদ্ধি পরিষদ নামে একটি সেবা মূলক সংগঠন। সেই সময় এই সংগঠন প্রায় ১০০জন মানুষকে রিক্সা ও হাতগাড়ি প্রদান করার পাশাপাশি হাজারখানেক মানুষের কর্মসংস্থানেরও সৃষ্টি করে। 

অর্থনীতিতে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রীধারী সৈয়দ মাসুম ১৯৯৮ সাল থেকে ২০০৩সাল পর্যন্ত মৌলভীবাজার জেলার অন্যতম বৃহৎ মহিলা বিদ্যাপীঠ কুলাউড়া ইয়াকুব তাজুল মহিলা ডিগ্রী কলেজে অর্থনীতি বিষয়ে অধ্যাপনা করেন।

দেশে তিনি বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানেও কাজ করেন। বি সি এস পরীক্ষার সর্বশেষ ধাপ ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশে সিনিয়র অফিসার হিসাবে নিয়োগ পাওয়ার পরও প্রবাসে আসার কারনে এই কাজ গুলো করা তাঁর পক্ষে সম্ভব হয়নি। 

২০০৩ সাল থেকেইংল্যান্ডে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। 

বর্তমানে তিনি বিভিন্ন ব্যবসায়িক কর্মকান্ডে জড়িত আছেন। ইংল্যান্ড থেকে প্রিন্ট ভার্সনে প্রকাশিত একটি সাপ্তাহিক পত্রিকায় সাহিত্য সম্পাদক হিসাবেও কাজ করছেন। 

কমলগঞ্জ পাবলিক লাইব্রেরী গঠনে তিনি গুরুত্বপূর্ণ 

ভূমিকা পালন করেন। কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য হিসাবেও কবি সৈয়দ মাসুম মনোনীত হয়েছেন। 

কমলগঞ্জ উপজেলা ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের  উপদেষ্টা ছাড়াও কমলগঞ্জস্থ সৈয়দ মাসুম ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের তিনি প্রধান পৃষ্ঠপোষকের দায়িত্ব পালন করছেন।

সৈয়দ সোহেল ব্যাংকার ও সমাজকর্মী

যুগ্ম আহ্বায়ক শমশেরনগর হাসপাতাল বাস্তবায়ন কমিটি ইউকে

লন্ডন

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

Related posts

রুস্তমপুর ইউনিয়ন ছাত্র সংসদের ৮ম দ্বিবার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন । 

[email protected]

শমশেরনগর হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার সাথে যুক্ত হলেন লণ্ডনের সেলিব্রিটি শেফ আতিকুর রহমান।

[email protected]

যুক্তরাজ্যে ৩ দিনে ৩ বাংলাদেশি খুন, কমিউনিটিতে চরম আতঙ্ক

[email protected]

Leave a Comment